রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ১১:৪২ পূর্বাহ্ন

উখিয়ায় কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীর উপর হামলা

মেয়ে

এম ফেরদৌস উখিয়া ::

উখিয়ায় কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় প্রবাসীর স্ত্রী রোজিনা আক্তার (২৭) নামে এক মহিলাকে পরিকল্পিত ভাবে জোরপুর্বক রাতের আধারে ডাকাতের বেশে ডুকে ধর্ষণের চেষ্টা ও যৌনাঙ্গে হাত দিয়ে বিভিন্ন ভাবে অশ্লীনতার অভিযোগ উঠেছে জালিয়াপালং ইউনিয়নের বাসিন্দা শামশুল আলমের বিরুদ্ধে।

গত ( ২৫ ডিসেম্বর) শনিবার রাত ১২ টার দিকে জালিয়াপালং দক্ষিন সোনাইছড়ি বায়তুশ শরফের পুর্বপাশে এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে উখিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে জালিয়াপালং সোনাইছড়ি এলাকার কাসেম মার্কেটের পিছনে অভিযুক্ত রোজিনা আক্তারের ভগ্নিপতি কামাল উদ্দিনের বাড়িতে বেড়াইতে যাওয়ার সময় একা পেয়ে কয়েকজন লোক টিটকারি,উত্যাক্তমুলক অশ্লীন কথাবার্তা বলেন। রোজিনা একা হওয়ায় কোন প্রতিবাদ ও বাধা বিপত্তি না করে তার বোনের বাড়িতে চলে যায় এবং রাতের খাওয়া দাওয়া শেষে মোবাইলে অচিন নাম্বার থেকে মোবাইলে হঠাৎ কল আসলে রিচিভ করার সাথে সাথে কোন কথাবার্তা ছাড়া শামশুল আলম নাম বলে পরিচয় দিয়ে এক ব্যাক্তি হঠাৎ তার সাথে দেখা করার জন্য বাহিরে আসতে বলে( কুপ্রস্তাব)। মুবাইলে হুংকার দিয়ে বলে বের না হলে বিপদ আছে । তিনি কোন কথা না শুনে কল কেটে দিয়ে মোবাইল অফ করে ঘুমিয়ে পড়েন।

পরে রাত ১১ টার দিকে একদল লোক এসে বোনের বাড়িতে ডাকাতের বেশে দরজা ভেংগে ডুকে রোজিনাকে এলোপাথাড়ি মারধর করেন তারপর কয়েকজনে ধরে নিয়ে হাত পা বেধে তার গোপাঙ্গে হাত দিয়ে বিভিন্ন অশ্লীলতা করে। এই ঘটনা কাউকে না বলার জন্য একটি স্টাম্পের জোরপূর্বক তার স্বাক্ষর নিয়ে হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়। পরে তারা জানতে পারে সাবেক মেম্বার এলাকার চিহ্নিত ডাকাত শামশুল ও তার সহযোগিরা এ কর্মকান্ড চালিয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহমেদ সঞ্জুর মোরশেদ জানান, আমরা এখনো এরকম কোন অভিযোগ পাইনি। সঠিক তথ্যউপাথ্য নিয়ে অভিযোগ পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ