মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন

করোনা লক্ষণের অজুহাত দিয়ে অফিসে অনুপস্থিত থাকা যাবে না

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

করোনা লক্ষণের অজুহাত দিয়ে অফিসে অনুপস্থিত থাকা যাবে না বলে জানিয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। একইসাথে শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে দ্রুত পরীক্ষার পরামর্শও দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা করার জন্য একটি সতর্কতামূলক অফিস আদেশে এ কথা বলা হয়েছে।

অফিস আদেশে বলা হয়েছে, প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সব কমকর্তা ও কর্মচারীকে কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা করার জন্য সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ করার জন্য পাঁচটি অনুশাসন প্রতিপালনেরও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে অফিস আদেশে।

সেগুলো হলো:

১. কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীর মধ্যে কোভিড-১৯ এর লক্ষণ যেমন- জ্বর, সর্দি, কাশি বা অন্যান্য উপসর্গ প্রকাশ পেলে মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন শাখাকে অবহিত করে নিজ নিজ বাসায় অবস্থান করতে হবে।

২. কোভিড-১৯ এর উপসর্গ দেখা দিলে দ্রুত পরীক্ষা করাতে হবে এবং পরীক্ষায় কোভিড-১৯ নেগেটিভ হলে কোনো অজুহাতেই অফিসে অনুপস্থিত থাকা যাবে না।

৩. কারও করোনা পজিটিভ হলে সেই কর্মকর্তা-কর্মচারীকে পরবর্তী কোভিড-১৯ নেগেটিভ না হওয়া পর্যন্ত বাসায় অবস্থান করে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে।

রিপোর্ট নেগেটিভ আসলে মন্ত্রণালয়কে অবহিত করে অফিসে উপস্থিত হতে হবে।

৪. কর্মস্থলে অবস্থানকালে আবশ্যিকভাবে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে অনুসরণ করে সাবান পানি দিয়ে হাত ধুতে হবে এবং মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে।

৫. পরীক্ষায় কোভিড-১৯ নেগেটিভ/পজেটিভ যাই হোক মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন শাখায় ওই রিপোর্টের অনুলিপি পাঠাতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ