শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন

ক্ষমতার রদবদল হলেও মিয়ানমারের সঙ্গে কাজে অসুবিধা হবে না:

মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানে ক্ষমতার যে রদবদল হয়েছে তাতে দেশটির সঙ্গে ঢাকার কাজ করতে অসুবিধা হবে না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

অসুবিধা না হওয়ার কারণ হিসেবে সচিব উল্লেখ করেন, গত ৬০-৭০ বছরের মধ্যে অধিকাংশ সময়ে সেনা শাসিত ছিল মিয়ানমার, তখনও তাদের সঙ্গে কাজ করেছে বাংলাদেশ।

তবে মিয়ানমারের কারও সঙ্গে কথা না হলেও ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে এ ইস্যুতে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মাসুদ বিন মোমেন।

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের মাসুদ বিন মোমেন আরও জানান, রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীনের মধ্যস্থতায় ৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে যৌথ ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক অনিশ্চিত হয়ে গেছে। আমি জানতে পেরেছি মিয়ানমারের ক্যাবিনেট ভেঙে ১১জনকে নতুন নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আমার মনে হয় তাদের দায়িত্ব নেওয়ার জন্য কিছুটা সময় দেওয়া প্রয়োজন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার জরুরি বৈঠকে বসছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। বৈঠকটি আগেই নির্ধারণ ছিল। তবে বর্তমান পরিপেক্ষিতে বৈঠকটি এগিয়ে আনা হয়েছে। আমরা জাতিসংঘে নিয়োজিত আমাদের রাষ্ট্রদূতকে বলেছি, বৈঠকে মিয়ানমারের সম্প্রতি ইস্যুটির প্রাধান্যে যেন রোহিঙ্গা ইস্যু চাপা পড়ে না যায়।

সচিব বলেন, বিভিন্ন দেশ ও সংস্থা তাদের স্বার্থে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেবে। আমরা আমাদের স্বার্থ দেখে মিয়ানমারের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষা করে চলব।

মিয়ানমারে বাংলাদেশ দূতাবাসের অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে পররাষ্ট্র সচিব জানান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মহাপরিচালকের সঙ্গে রাষ্ট্রদূতের যোগাযোগ হয়েছে। আমরা তার সঙ্গে মেইলে চিঠি আদান-প্রদান করেছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ