বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন

তেল-পেঁয়াজের সঙ্গে অস্থির আদা-ময়দার বাজারও

তেল

নিত্যপণ্যের বাজার যেন হঠাৎ অস্থির হয়ে উঠেছে। বেশ কিছুদিন ধরে চড়া দামে বিক্রি হওয়া সয়াবিন তেলের দাম এবার রেকর্ড গড়েছে। সপ্তাহের ব্যবধানে লিটারে বোতলজাত সয়াবিনের দাম ১০ টাকা বেড়েছে। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আটা-ময়দার দামও। এ দুটি পণ্যের কেজিতে দাম বেড়েছে ২ থেকে ৪ টাকা।

হঠাৎ করে মৌসুমে ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে পেঁয়াজের বাজার। দেশি পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১০ থেকে ১২ টাকা বেড়েছে। এ ছাড়া রসুন, আদা ও হলুদের দামও বেড়ে গেছে। সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দর কেজিতে ৫ টাকা বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর বাজার ঘুরে দেখা যায়, দোকানগুলোতে নতুন দরে বোতলজাত তেল বিক্রি হচ্ছে। প্রতি লিটার রূপচাঁদা সয়াবিন তেল ১৪০ টাকা এবং অন্যান্য কোম্পানির তেল ১৩৫ টাকা বিক্রি হচ্ছে। যেসব দোকানে আগের দরের তেল রয়েছে তারাও এখন বাড়তি দামেই বিক্রি করছে। তবে দু-একটি দোকানে ১৩০ টাকা লিটারে বিক্রি হতে দেখা গেছে। খোলা সয়াবিন তেল লিটারে ২ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ১১৪ থেকে ১১৬ টাকায়।

কারওয়ান বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী আবুল কাশেম সমকালকে বলেন, তেলের দামে রেকর্ড গড়েছে। এর আগে এত বেশি দামে ভোজ্যতেল বিক্রি হয়নি।

টিসিবির তথ্য অনুযায়ী, সপ্তাহের ব্যবধানে তেলের দাম বেড়েছে লিটারে গড়ে ১০ টাকা। আর এক বছরের ব্যবধানে বোতলজাত সয়াবিন তেল লিটারে বেড়েছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা। দেশের বাজারে তেলের সঙ্গে বাড়তে শুরু করেছে আটা ও ময়াদার দাম। কেজিপ্রতি ২ থেকে ৪ টাকা বেড়ে খোলা আটার কেজি এখন ৩০ থেকে ৩২ টাকা, প্যাকেট আটা ৩৪ থেকে ৩৫ টাকা, খোলা ময়দা ৩৫ থেকে ৩৮ টাকা ও প্যাকেট ময়দা ৪০ থেকে ৪৫ টাকা হয়েছে। এবার মুড়িকাটা পেঁয়াজ আগাম তুলে ফেলায় মৌসুমও আগেভাগে শেষ হয়েছে।

পরিপকস্ফ হালিকাটা পেঁয়াজ আসতে কিছুদিন সময় লাগবে। এ কারণে এখন বাজারে দেশি পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে বলে জানান কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ী মোবারক হোসেন। তিনি বলেন, শীত ও ঘন কুয়াশার কারণে পেঁয়াজের সরবরাহ কিছুটা কমেছে। এই বাজার ঘুরে দেখা যায়, পাইকারিতে ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ, যা আগে ২০ থেকে ২২ টাকা ছিল। খচুরা বাজারে গতকাল প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৩৬ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

টিসিবির মুখপাত্র হুমায়ুন কবির সমকালকে বলেন, টিসিবির খোলা বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি অব্যাহত আছে। প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এই বিক্রি কার্যক্রম আগামী এপ্রিল পর্যন্ত চালু রাখার পরিকল্পনা রয়েছে। এদিকে সপ্তাহের ব্যবধানে গড়ে ১০ টাকা বেড়ে দেশি রসুন ১০০ থেকে ১২০ টাকা এবং আমদানি রসুন ১১৫ থেকে ১৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে দেশি ও আমদানি করা আদা ৮০ থেকে ১৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দেশি হলুদের দাম কেজিতে ৩০ টাকা বেড়ে ২৩০ টাকা হয়েছে। এ ছাড়া ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে ৫ টাকা বেড়ে ১৩০ থেকে ১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ