শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৩৩ পূর্বাহ্ন

লামা-আলীকদম, চকরিয়া সড়কের প্রতিটি বাঁক যেন মরণ ফাঁদ

নষ্ট রাস্তা

এম. মিজানুর রহমান, লামা বান্দরবান,

বান্দরবানের লামা-আলীকদম, ফাসিয়াখালী সড়কের প্রতিটি বাঁক যেন মৃত্যুর ফাঁদ হয়ে দাড়িয়েছে। প্রতিদিনই এই সড়কে ঘটছে নানা ছোট বড় দুর্ঘটনা। পাহাড়ী আকাবাকা সড়ক আর উচু নিচু টিলা অতিক্রম করতে গিয়ে কখনো ব্রেক ছিড়ে যাওয়া,কখনো নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঘটছে দুর্ঘটনা।

সম্প্রতি বান্দরবানের লামা-আলীকদম ও ফাসিয়াখালী সড়কের ২০ কিলোমিটার পয়েন্টে পাথরের ক্রংক্রিট বোঝায় দু’টি ড্রাম ট্রাক উল্টে যায়। ২৭ নভেম্বর (শুক্রবার) সকাল ৯টায় ৫ মিনিটের মধ্যে ১০ ফুট ব্যবধানে এই দূর্ঘটনা ঘটে। গত ৪দিনের ব্যবধানে এনিয়ে তিনটি মালবাহী ট্রাক এবং গত এক মাসে ৬টি গাড়ি দুর্ঘটনায় পতিত হয়।

সুত্রে আরো জানা যায়,২৫ নভেম্বর দুপুরে বিদ্যুতের পিলারবাহী আরেকটি লরি পাহাড়ের খাদে পড়ে যায়। সড়কের ধারন ক্ষমতার অনেকগুন বেশি মালামাল পরিবহন,রাস্তার প্রশস্ততা কম, বাঁকগুলোতে রোড সাইন ও দুর্ঘটনা প্রতিরোধ ব্যবস্থা পর্যাপ্ত না থাকায় সড়কে সিরিজ দুর্ঘটনা বেড়ে চলছে বলে মতামত স্থানীয়দের।

এই সড়কে যাত্রীবাহী গাড়িসহ ট্রাক, পিকআপ, কার্গো ও বিভিন্ন সংস্থার যানবাহন আগের চেয়ে চলাচল বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে, তাছাড়া লামা ও আলীকদম উপজেলায় পর্যটকদের আগমনও বেড়েছে, এরই প্রেক্ষিতে ৮০’র দশকে নির্মিত ১২ ফুট কোনকোন স্থানে ১৮ ফুট প্রশস্ত বর্তমান সড়কটি নিরাপদ নয় অনেক চালকের কাছে।

উপজেলার সংবাদকর্মীরা বলেন, বান্দরবানের লামা আলীকদম উপজেলায় প্রতিদিনই বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনা। আগের চেয়ে এখন বেশি পরিমান যানবাহন প্রবেশ করায় সড়কটি মরন ফাঁদে পরিণত হয়েছে। তিনি আরো বলেন, সড়কের বাঁকগুলোকে চালকদের নজরে আনতে দৃস্টিকর্ষক রোড সাইন স্থাপন, দুর্ঘটনা প্রতিবন্ধক ব্যবস্থা জোরদার ও সড়ক প্রশস্ত করা দরকার।

লামা উপজেলার বাসিন্দা মো.আশরাফ বলেন, লামা থেকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার হাইওয়ে সড়ক পর্যন্ত চলাচল করা এখন আমাদের জন্য ঝুকিপূর্ন হয়ে ওঠেছে। আগের চেয়ে বেশি পরিমান লোড গাড়ী লামা উপজেলায় প্রবেশ করা এবং ঝুকিপূর্ণ বিভিন্ন পয়েন্টে সাইন ব্যবহার না হওয়ায় দিন দিন এই সড়কটি দুর্ঘটনাপ্রবল সড়ক হিসেবে পরিচিত হয়ে যাচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি নতুনভাবে লামা আলীকদম সড়কটি পর্যবেক্ষন করে লামা-আলীকদম ও ফাঁসিয়াখালী সড়কটি প্রশস্ত করা ও দৃস্টিকর্ষক রোড সাইন স্থাপন করলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকটাই কমে আসবে এবং সড়কে হতাহতের ঘটনাও কমবে।

 

আরোও পড়ুন

 

 

স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতি অব্যাহত, টিকাদান কর্মসূচি বন্ধ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ